সোমবার, ০৩ অগাস্ট ২০২০, ১২:৪৮ পূর্বাহ্ন

তানিয়া ইসলামের গল্প “রুপান্তর”

তানিয়া ইসলামের গল্প “রুপান্তর”

“রুপান্তর ”
তানিয়া ইসলাম

পর্ব ১

আবিদ গ্রামের অতি সাধারন একটি খেটে খাওয়া পরিবারের ছেলে। উচ্চমাধ্যমিক শেষ করছে ইউনিভার্সিটির জন্য আবেদন করছে ঢাকা তে চান্স ও পেয়েছে। এবার একটাই সমস্য ও থাকবে কোথায়, পরিচিত কেউ নেই তেমন। আবিদ ওর বাবাকে বললো
আবিদ – বাবা আমিতো ঢাকা কলেজে ভর্তির চান্স পেয়েছি
বাবা – আলহামদুলিল্লাহ ভালোতো
আবিদ – বাবা ভালো কিন্তু আমি থাকবো কোথায় কেউতো নেই আমাদে পরিচিত?
বাবা – আছে তুই টেনশন করিশ না আমি তোর ব্যাবস্থা করে দিচ্ছি
আবিদ – আচ্ছা বাবা
বাবা – তোর কবে যেতে হবেরে আবিদ
আবিদ – দু তিন দিনের ভিতরে গেলেই ভালো হয়
বাবা – ঠিক আছে আমি তোর কাকার সাথে কথা বলে নিচ্ছি
আবিদ – কোন কাকা?
বাবা – তোর আলম কাকা
আবিদ – আলম কাকা কি ঢাকা থাকে?
বাবা – হ্যাঁ
আলম সাহেব একটা সরকারি চাকরি করে , কোন মতে দি মেয়ে এক ছেলেকে নিয়ে টান পোরনে সংসার চালায়।
আবিদের বাবা আলম সাহেব কে ফোন দিলো
বাবা – কে আলম নাকি?
আলম – হ্যাঁ ভাইয়া আমি
বাবা – কেমন আছিস
আলম – আলহামদুলিল্লাহ ভালো আপনি?
বাবা – আলহামদুল্লাহ
বাবা – আলম আমিতো সমস্যায় পরে গেছিরে
আলম – কি সমস্যা ভাই
বাবা – আবিদ ঢাকা কলেজে চান্স পেয়েছে, সেখানে ও থাকবে কোথায় এটা নিয়ে টেনশনে আছে
আলম – ও এই কথা আচ্ছা ও আমার বাসায় থাকবে, ওকে বলে দিয়েন। আর ও কবে আসবে
বাবা – দু একদিনের মাঝেই যাবে বলছে
আলম – আচ্ছা আবিদ কে পাঠিয়ে দিয়েন
আবিদ এই প্রথম বাড়ি ছেড়ে একা থাকার উদ্দেশ্য ঢাকা রওনা দিছে
আবিদের মা কান্নায় ভেঙে পরছে কখনোতো ছেলেকে ছাড়া থাকেনি।আবিদ মাকে বুঝিয়ে রেখে যাচ্ছে
আবিদ ঢাকা গাড়িতে করে ঢাকা গেলো, নতুন পরিবেশ নতুন জায়গা না যানি কেমন হয়
আবিদের কাকি মা আবিদ কে দেখে যেনো আকাশ থেকে পরলো।
দৌড়ে গিয়ে আলম সাহেব কে বললো
কাকি – এটা কি হল?
আলম – কোনটা?
কাকি – এই উটকো ঝামেলা, নিজেরাই চলতে পারিনা তার উপর আবার এটা
আলম – আবিদ ভালো স্টুডেন্ট আমাদের ছেলে মেয়েদের ও পড়াবে আর এখানথেকে কলেজে যাবে
কাকি – যানো একটা লোকের পিছনে খরচ কতো
আলম -ওটা নিয়ে তুমি ভেবনা
কাকি – মানে কি? ভাববো নাই বা কেনো
আলম – ভাইয়া প্রতি মাসে কিছু টাকা দেবে বলছে
কাকি – ও তাই বলো

পর্ব ২

আবিদ আলম সাহেবের বাসা থেকেই কলেজে যাওয়া আশাকরে, যদিও আলম সাহেবের বাসা থেকে কলেজ অনেক দুরে তবুও কি আর করার। যদি একটা কলেজ হোস্টেলে সিট পায় সেখানে উঠবে এটা ভাবছে আবিদ।এরি মাঝে আলম সাহেবের কন্ঠস্বর শুনতে পেলো
আলম – আবিদ এটা তোমার বাসা মনে করে থাকবে বাবা
আবিদ – ঠিক আছে কাকা
খাবারের সময় হল সবাই খেতে গেলো আবিদ একটু পরে গেলো গিয়ে দেখে ভাত আর সবজি কি%

সংবাদটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

Comments are closed.




© All rights reserved © 2019 Lalsabujnews24.Com
Desing & Developed BY Kazi Jahir Uddin Titas::01713478536